বুস্ট/প্রমোটের আগে যে বিষয়গুলো জানা অত্যাবশ্যকঃ


প্রশ্ন -১ঃ বুস্ট কি??

বুস্ট হল একটা নির্দিষ্ট পোস্ট/কন্টেন্ট ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছে দেওয়া,
অর্থাৎ যারা ফেসবুক ব্যবহার করে, তাদের নিউজফিডে বুস্টকৃত পোস্ট টি দেখা যাবে।বাজেট অনুযায়ী একটা নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষের কাছে পোস্ট টি পৌঁছাবে।
বুস্ট এ আপনার পোস্ট টি ব্যবহারকারীদের নিউজফিডে শো করবে।
বুস্ট করা হয় মূলত সেল বৃদ্ধির জন্য।




প্রশ্ন-২ঃ প্রমোট কি??

প্রমোট হল আপনার পেজ টা একটা নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছাবে।
ব্যবহারকারীদের নিউজফিডে আপনার হোম পেজ শো করবে।

প্রশ্ন -৩ঃবুস্ট ও প্রমোটের ব্যসিক পার্থক্য কি?

বুস্ট শুধু মাত্র নির্দিষ্ট পোস্ট/ কন্টেন্ট(ইমেজ, ভিডিও,অ্যানিমেশন, লিখা) ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছাবে।
আপনি যদি কোন প্রোডাক্ট সেল করতে চান, তাহলে সে প্রোডাক্ট এর পোস্ট টা বুস্ট করবেন যাতে নির্দিষ্ট সংখ্যক ব্যবহারকারী প্রোডাক্ট এর পোস্ট দেখে এবং কিনতে আগ্রহী হয়।
বুস্ট মূলত সেল বৃদ্ধির জন্য করা হয়।

অপর দিকে প্রমোট হল আপনার হোম পেজ টা ব্যবহারকারীদের নিউজফিডে পৌঁছানো।ব্যবহারকারীর নিউজফিডে আপনার হোম পেজ শো করবে এবং লাইক এর অপশন থাকবে।

প্রমোটের মাধ্যমে আপনার পেজ এ লাইক বাড়বে।

প্রশ্ন-৪ঃ বুস্ট করা ভাল হবে নাকি প্রমোট করা ভাল হবে??
আমার মতে পেজ এ ৫০০ লাইক হলেই প্রমোট করার আর দরকার নাই, শুধু বুস্ট করবেন।

ধরুন আপনার পেজ এ ১০০০০ লাইক আছে, তারপরও আপনি যদি বুস্ট না করেন, তাহলে আপনার পোস্ট টি মানুষের কাছে পৌঁছাবে না।
সামান্য অর্গানিক রিচ হতে পারে।
১০০০০ লাইক থাকলে হয়ত এর ৪% রিচ হবে।
আবার আরেকজনের পেজ এ ২০০ লাইক আছে, সে যদি কন্টিনিউ তার নতুন পোস্ট গুলো বুস্ট করে, তাহলে তার রেগুলার একটা সেল আসবে, তার নতুন প্রোডাক্ট গুলো সে তার নির্দিষ্ট কাস্টমারকে দেখাতে পারছে।
সো বুঝতেই পারছেন, কোনটা ভাল হবে।
তাছাড়া বুস্ট করলেও আপনার কিছু লাইক আসবে পেজ এ, যেগুলো একদম রিয়েল লাইক।

(আমি কোন লাইক বিক্রয় করি না, তাই কাইন্ডলি কেউ এত লাইক কত, এমন প্রশ্ন করবেন না। বিক্রিয় করা লাইক অধিকাংশই ফেক হয়, যেটা কোন কাজে আসে না)
অনেকেই বলে প্রমোট করলে পেজ পরিচিতি পায়, এটা ভুল কথা।

আপনার প্রোডাক্ট কোয়ালিটি যদি ভাল হয়, আপনি এমনিতেই পরিচিতি পাবেন।তাছাড়া আপনি যদি বুস্টের মাধ্যমে রেগুলার আপনার প্রোডাক্ট গুলো কাস্টমারদের দেখান, একজন গ্রাহক যখন আপনার নতুন নতুন প্রোডাক্ট এর ছবি তার নিউজফিডে কয়দিন পরপর দেখবে, একদিন সে নিজ থেকেই পেজ এ ঢুকে দেখবে।

প্রশ্ন-৫ঃ রিচ এর ব্যপার টা কি??
রিচ মানে তো পৌঁছানো, এটা সবাই জানি।

আপনি যখন টাকা দিয়ে আপনার পোস্ট বুস্ট দিবেন, তখন আপনার পোস্ট নির্দিষ্ট সংখ্যক ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছাবে।এটাই হল রিচ।

প্রশ্ন-৬ঃ বেশিদিন বুস্ট করলে বেশি রিচ হবে??
রিচ টা আসলে দিনে সাথে সম্পর্কযুক্ত না, রিচ এর সম্পর্ক টাকা এর সাথে।
ধরুন আপনি বুস্টের জন্য ৩ দিনে ৩ ডলার বাজেট করলেন,

আরেকজন ১ দিনেই ৩ ডলার বাজেট করল,
২ জনের রিচ কিন্তু প্রায় সমানই হবে।
আপনি তিনদিন করতেছেন বলে আপনার বেশি হবে না।
আপনি ডেইলি বাজেট যত বাড়াবেন, রিচ তত বাড়বে।

প্রশ্ন-৭ঃ টার্গেট বুস্ট কি??
মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

ধরুন বাংলাদেশে ২ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারী রয়েছে। এর মধ্যে ১৩ বছরের বাচ্ছা রয়েছে আবার ৬০ বছরের বৃদ্ধও রয়েছে।
রিকশাচালক রয়েছে, আবার কোন কোম্পানির সিইও রয়েছে।
এই ২ কোটির মধ্যে আপনার পোস্ট যাবে ধরুন বাজেট অনুযায়ী ১৫০০০ মানুষের কাছে।

সবাই কি আপনার প্রোডাক্ট কিনবে/সবাই কি আপনার কাস্টমার??

নিশ্চই না, একজন রিকশাচালক অথবা ১৩ বছরের বাচ্ছা নিশ্চই আপনার প্রোডাক্ট কিনবে না।
সো আপনার পোস্ট কি রিকশাচালক বা ১৩ বছরের বাচ্ছার কাছে পৌঁছিয়ে কোন লাভ আছে?? নাকি লস?
অবশ্যই লস, কারণ প্রত্যেকটা রিচের জন্য আপনার টাকা খরচ হচ্ছে।

আপনি নিশ্চই চান যেন আপনার পোস্ট টা এমন মানুষের কাছে পৌঁছায়, যাদের কিনার সামর্থ্য আছে বা যাদের ওই প্রোডাক্ট টা দরকার।
প্রশ্ন-৮ঃ কিভাবে টার্গেট কাস্টমারের কাছে পৌঁছাব?
এখন আপনার পোস্টটি ২ কোটি মানুষের যে কোন কারও কাছে পৌঁছাতে পারে।

এখন আপনি এই ২কোটি সংখ্যাকে যত ন্যারো করবেন, ততই নির্দিষ্ট হবে আপনার টার্গেট কাস্টমার।

আপনি একটি পোস্ট বুস্ট করবেন,

আপনি শুরুতে একটা এজ লিমিট দেন, আপনার যারা কাস্টমার, তাদের বয়স কত হবে?
ধরুন, ১৮-৪৪।
বয়সের লিমিট দেওয়ার পর সংখ্যাটা ১ কোটি হয়ে গেল।
এবার ধরুন, আপনার যারা কাস্টমার, তারা মেয়ে হবে।
এবার জেন্ডার দিন, ফিমেল।তাহলে সংখ্যাটা হয়ে গেল ৫০ লাখ।
এবার ধরুন আপনি বেবি আইটেম সেল করেন, সুতরাং আপনি চিন্তি করলেন, যাদের বেবি আছে তাদের কাছে পোস্টটি পৌঁছাতে।
এবার আপনি অডিয়েন্স দিলেন, যাদের ১-২ বছর/৫-৬ বছরের বেবি আছে।তাহলে ওই ৫০ লাখের মধ্যে যাদের বেবি আছে, তাদের কাছেই আপনার পোস্ট পৌঁছাবে।

অথবা আপনি গিফট আইটেম সেল করেন,

সুতরাং আপনি এমনভাবে টার্গেট করতে পারেন যাদের ফ্রেন্ড এর আগামী ১ সপ্তাহে বা আগামী এক মাসে জন্মদিন আছে অথবা যাদের আগামী এক মাসে অ্যানিভার্সারী আছে।
তাহলে ওই সংখ্যাটা চলে আসবে ১০ লাখে।
এই ১০ লাখ আপনার অডিয়েন্স, ধরেন এদের বেশিরভাগই আপনার কাস্টমার হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

আপনাকে আগে আপনার কাস্টমার চিনতে হবে।

আপনার কাস্টমার কারা হবে, তাদের বিহ্যাবিওয়ার কেমন হবে, তারা কি খেতে পছন্দ করে, কেমন গান পছন্দ করে, কেমন মুভি পছন্দ করে, তারা কি ছাত্র নাকি জব হোল্ডার, নাকি ব্যবসায়ী, তারা কি সিঙ্গেল নাকি ইন অ্যা রিলেশন নাকি অ্যাঙ্গেজড, নাকি বিবাহিত নাকি ডিভোর্সি।

এমন শতাধিক ইন্টারেস্ট দিয়ে আপনার টার্গেট অডিয়েন্স সেট করতে পারবেন।
মনে রাখবেন, রিচ বেশি মানেই ভাল বুস্ট না,

যারা জীবনেও অনলাইন থেকে কিনবেনা, এমন ১০০০০ জনের কাছে পৌঁছানোর চাইতে যারা কিনবে এমন ১০০ জনের কাছে পৌঁছানো বেটার।
কারণটা নিশ্চই বুঝতে পেরেছেন।

প্রশ্ন-৯ঃ বেশি বাজেট হলেই কি বেশি সেল হবে??
নাহ, সেল টা অনেকগুলো বিষয়ের উপর ডিপেন্ড করে।

আপনার প্রোডাক্টটি কতটা ইউনিক?
বাসার নিচের দোকানে যে জিনিসটা অ্যাভেইলেবল, সে জিনিসটা নিশ্চই ডেলিভারি চার্জ দিয়ে আপনার থেকে কিনবে না।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল, ইমেজ কোয়ালিটি।

একটা জিনিস ভাবুন, একজন কাস্টমার কিন্তু প্রোডাক্ট ফিজিক্যালি দেখতেছেনা, শুধু আপনার ইমেজটা দেখেই কিনার সিদ্ধান্ত নিবে।
আবার আপনার ইমেজটা এমন অ্যাট্রাকটিভ হতে হবে, যেন ব্যবহারকারী দ্রুত নিউজফিড স্ক্রল করার সময় তার চোখ আপনার পোস্ট এ আটকে যায় এবং সে স্ক্রলিং থামিয়ে আপনার ইমেজগুলো দেখতে বাধ্য হয়।

সুতরাং সেল বাড়ানোর জন্য আগে ইমেজ কোয়ালিটি টা ঠিক করুন, এটা আমি সবাইকে বলি।ইমেজ ভাল না হলে সেল ভাল নাও হতে পারে।

আরেকটা বিষয়, ইমেজের মধ্যে টেক্সট যত কম দিবেন, রিচ তত বেশি হবে।টেক্সট দিয়ে ইমেজকে জগাখিচুড়ি করে ফেলবেন না।
আরেকটা বিষয়,
ইমেজের মধ্যে কোন ব্র্যান্ড নাম বা কোন বডি পার্ট থাকলে ফেসবুক সে পোস্ট ডিলেট দিয়ে দিবে আইডি সহ পেজ ডিজেবল করে দিতে পারে।সুতরাং এমন কোন ইমেজ দেওয়া পোস্ট বুস্ট দিবেন না।

ক্যাপশন অবশই শর্ট দেওয়ার চেষ্টা করবেন, যত ছোট ক্যাপশন, তত ভাল রেসাল্ট পাবেন।
এবার আমার বিষয়ে বলিঃ

আমি কোন এজেন্সি না, পারসোনালি বুস্ট করে দেই, আগে বুঝার চেষ্টা করি এই প্রোডাক্টের সম্ভাব্য টার্গেট কাস্টমার কারা।
সে অনুযায়ী বুস্ট করি।
আবারও বলি, আমি লাইক বিক্রয় করি না।
নির্দিষ্ট বাজেট দিয়ে প্রমোট করতে পারবেন, তবে লাইকের সংখ্যা নির্দিষ্ট না।
১০০০ টাকার প্রমোটে ৬০০/৭০০ লাইক আসতে পারে।এবং সেগুলো রিয়েল লাইক।
আপনার পেজ এ ৫০০ লাইক থাকলে প্রমোট না করে রেগুলার বুস্ট করুন, এটা পার্সোনাল মতামত।

আমি সম্ভাব্য টার্গেট অডিয়েন্স দিয়ে বুস্ট করে দিব।সেলের গ্যারান্টি কেউ দিতে পারবে না।
আরেকটা জানানোর বিষয় হল, বাংলাদেশ সরকার সকল স্যোশাল মিডিয়া অ্যাড এর উপর ১৫% ভ্যাট আরোপ করেছে জানুয়ারি ২০২০ থেকে।তাই বাজেটের সাথে ১৫% ভ্যাট যোগ হবে।

অমুক অ্যাজেন্সি আত টাকায় করে, আপনার বেশি কেন??
আমার বেশি না, ফেসবুক যা নেয়, আমি তার সাথে সামান্য সার্ভিস চার্জ রাখি।
যেখানে ডলার রেট-৮৩/৮৪ টাকা, সেখানে ৭০/৭৫ টাকা ডলার রেট এ কিভাবে করে সেটা আমার বোধগম্য নয়।সফটওয়্যারের মাধ্যমে এখন হাজার হাজর লাইক নেওয়া যায়।
তাই সস্তার তিন অবস্থায় না যাওয়ার অনুরোধ রইল।

1 comment:

Theme images by enot-poloskun. Powered by Blogger.